ইসলামের পক্ষে কথা বলায় নিজের পদ থেকে সরে যেতে হলো ডা. আবদুর রহিমকে

পিবিসি নিউজ: জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক ডা. আবদুর রহিম এবং শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সরিয়ে দিয়ে ওএসডি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সহকর্মীদের পোশাক বিধি নির্ধারণ করে দিয়ে বিতর্কের জন্ম দেয়া জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক পদ থেকে ডা. আবদুর রহিমকেও সরিয়ে দিয়ে ওএসডি করা হয়েছে।

একইসঙ্গে দুর্নীতির দায়ে মামলা করার পর এবার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক পদ থেকে অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সরিয়ে দিয়ে ওএসডি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার দুপুরে, এ সক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ। আবদুর রহিমের জায়গায় জনস্বাস্থ্যের পরিচালক পদে চলতি দায়িত্ব দিয়ে ডা. তানভীর আহমেদ চৌধুরীকে পদায়ন করা হয়েছে।

গত ২৮শে অক্টোবর জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক ডা. আবদুর রহিম এক বিজ্ঞপ্তিতে তার অধীনস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অফিস চলাকালে মোবাইল ফোন বন্ধ রাখা এবং মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের জন্য পুরুষ টাকনুর ওপরে এবং নারীদের হিজাব পরে পর্দা মেনে চলার নির্দেশনা দেন।

এরপর তুমুল সমালোচনার মুখে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শানো নোটিস পেয়ে ওই বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার করে ক্ষমা চান তিনি। তারপরই জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পদ থেকে সরে যেতে হলো আবদুর রহিমকে।

এদিকে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তদন্ত অনুযায়ী, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের যন্ত্রপাতি ক্রয়ে ছয় কোটি ৪০ লাখ টাকা লোপাট করেন ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া। এরপর অসদুপায় অবলম্বন ও দুর্নীতির জন্য তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a reply

PBC24