নওগাঁয় নির্বাচনী প্রচারে হামলা, ক্যাম্প ভাঙচুর, বিএনপি প্রার্থীসহ আহত ১০

কিউ, এম, সাঈদ টিটো, নওগাঁ : শনিবার দিবাগত রাত ৮ টায় নওগাঁ পৌরসভা নির্বাচনে শহরের নওযোয়ান মাঠ এলাকায় গণসংযোগ ও প্রচারণা চালানোর সময় প্রতিপক্ষের হামলায় বিএনপির মেয়র প্রার্থীসহ কমপক্ষে ১০ জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। এর পরপরই দয়ালের মোড় ও জনকল্যাণ মোড় এলাকায় বিএনপির নির্বাচনী ক্যাম্পও ভাঙচুর করা হয়। হামলায় আহত হন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র নজমুল হক সনি, তাঁর ছেলে সাদমান নিলয়, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস শুকুর, সদস্য এটিএম ফিরোজ হোসেন, আকলাকুর রহমান ও আবদুল হাকিম, জেলা জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা জাসাসের সাধারণ সম্পাদক এম কে ইকবাল, পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলাল হোসেন, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম, জেলা যুবদলের দপ্তর সম্পাদক ময়নুল হক প্রমুখ।

বিএনপি নেতারা জানান, বিকেল থেকে নওগাঁ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মাস্টারপাড়া এলাকায় জনকল্যাণ মোড় থেকে হেঁটে গণসংযোগ শুরু করেন বিএনপির প্রার্থী ও সমর্থকেরা। রাত ৮টার দিকে নওযোয়ান মাঠের উত্তর পাশে কাঁচাবাজার এলাকায় প্রচারণা চালানোর সময় ১০-১২টি মোটরসাইকেল নিয়ে হেলমেটধারী ২০-২৫ জন যুবক বিএনপির প্রার্থী ও সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এলোপাথারী মারপিটে বিএনপির নেতাকর্মীরা মারাত্মক আহত হন। হামলাকারীরা ওই এলাকায় একটি প্রাইভেট কার ও দুটি মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে। এছাড়া শহরের দয়ালের মোড় ও জনকল্যাণ মোড় এলাকায় বিএনপির প্রচার ক্যাম্প ভাঙচুর করে। হামলাকারীরা চলে গেলে স্থানীয়রা আহত বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়।

আহত নজমুল হক সনি বলেন, ‘প্রচারণা চালানোর সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকেরা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। তাদের হামলার মূল লক্ষ্য ছিলাম আমি। কিন্তু আমাকে বাঁচাতে গিয়ে আমার ছেলে ও কয়েকজন সমর্থক গুরুতর আহত হয়েছেন। হামলার পর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে আমি ছাড়া পেলেও অন্যরা এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নির্মল কৃষ্ণ সাহা বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সমর্থকেরা বিএনপির প্রার্থী ও তাঁর সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে বলে যে অভিযোগ করা হচ্ছে, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার। এটা দলীয় কোন্দলের কারণে হতে পারে। এখানে আওয়ামী লীগের কেউ জড়িত নয়।’

নওগাঁ সদর মডেল থানার এসআই ফয়সাল বিন আহসান বলেন, ‘এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

We will be happy to hear your thoughts

      Leave a reply

      PBC24
      Logo